কীভাবে? ডিজিটাল মার্কেটিং

ডিজিটাল মার্কেটিং কী? কেনো করবেন? কীভাবে শিখবেন? 

ডিজিটাল মার্কেটিং
আজকে আমি আপনাদের চেষ্টা করবো ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে গাইডলাইন দেওয়ার। সেই সাথে কিছু ফ্রি কোর্স দিবো। আশা করি পুরো পোস্ট মনযোগ দিয়ে পড়বেন । যদি মনযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন ডিজিটাল মার্কেটিং আসলেই কী! কেনো আপনি শিখবেন। শেষ পর্যন্ত পড়তে পারলে আপনি আর কোন তাবিজ আপা ভাইয়ের কাছে যাবেন না। নিজে ঘরে বসে শিখতে পারবেন।
ডিজিটাল মার্কেটিং কী?

এককথায় ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে ইন্টারনেটের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার করে পণ্য বা সেবা সমূহকে গ্রাহক পর্যায়ে পৌঁছানো । আগেকার দিনে কোন কোম্পানি তাদের পণ্য সমূহকে বিক্রি করার জন্য বিভিন্ন মার্কেটারদের কে নিয়োগ দিতেন। তারা গ্রাহক পর্যায়ে গিয়ে উক্ত পণ্যের গুনাগুনগুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতেন এবং গ্রাহকদেরকে তা কেনার জন্য আকৃষ্ট করতেন। বর্তমানে সেই কাজটিই তথ্যপ্রযুক্তি এবং ইন্টারনেটের কল্যাণে অনলাইনেই করা হয় যেটাকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলে। সহজ কথায় বললে” আগে দেখতেন পরিক্ষা শেসে আপনার কাছে মানুষ লিফলেট বিক্রি করতো অমুক প্রতিষ্টানে ভর্তি হওয়ার জন্য, আর বর্তমানে সবাই যেখানে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যাবহার করে, হাতে হাতে স্মার্টফোন তাই সব কোম্পানি তাদের মার্কেটিং গুলো অনলাইনে বা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে করে। যেমন আগের লিফলেট গুলোর মেসেজ এখন আপনাকে মেইল করে মেসেজ করে পাঠিয়ে দিচ্ছে। এখন ঐ আপনার মেইল যারা সংগ্রহ করে তারা ও কাইন্ড অফ ডিজিটাল মার্কেটার। কীভাবে মেইল সংগ্রহ করে সেটি পড়ে বলতেছি। তার আগে জানি কেনো আপনি ডিজিটাল মার্কেটার হবেন?

বিশ্বে যেখানে বর্তমানে ৪০০ কোটির বেশি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে এবং তার মধ্যে ৩০০ কোটির বেশি মানুষ বিভিন্ন সোশাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকে। এবং এই মানুষ গুলো কোন না কোন ভাবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের সাথে যুক্ত। যদি আপনি ডিজিটাল মার্কেটার হয়ে যান তাহলে চিন্তা করুন আপনার কাজের পরিমাণ কত হবে?
কীভাবে আপনি ডিজিটাল মার্কেটার হবেন?
চাইলেই আপনি ডিজিটাল মার্কেটার হতে পারবেন না! ডিজিটাল মার্কেটার আপনাকে হতে হলে অব্যশই অনেক পরিশ্রম করতে হবে। কারণ ডিজিটাল মার্কেটিং সেকশনের অনেক ক্যাটাগরি আছে। আপনি যদি মনে করেন সবই শিখে যাবেন তাহলে আপনি ভুল! আপনাকে যে কোন একটি বা দুইটি টপিক পছন্দ করতে হবে। এবং যেই ক্যাটাগরি পছন্দ করবেন সেটি নিয়ে যদি কাজ করেন তাহলে লাখ টাকা ইনকাম কোন ব্যায়াপার না।
চলুন এইবার জানি ডিজিটাল মার্কেটিং এর কিছু সেকশন এর নামঃ 
আমি এখন ডিজিটাল মার্কেটিং এর সেকশন গুলোর নাম বলবো সেই সাথে জানাবো ঐ গুলো আপনি কীভাবে কোথা থেকে শিখতে পারেন।
নোটঃ সব শিখার চেষ্টা না করে একটি টপিকে অভিজ্ঞ হওয়ার চেষ্টা করবেন। কারণ একটি টপিকে প্রোফেশনাল হয়ে গেলে বাকীগুলো নিয়ে এম্নিতেই ধারনা পেয়ে যাবেন।
সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনঃ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কে শর্টকাটে SEO বলে। SEO কী? SEO মূলত আপনার ওয়েবসাইট গুগল, ইয়াহু বিং বা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিন অনুসন্ধান ফলাফলগুলি পর্যালোচনা করে থাকে। যেমন দৈনিক আমরা কত কিছু গুগলে সার্চ করি। ধরেন আমি এখন সার্চ করলাম best mobile phone in 2020 এখন সার্চ করার পর আমি যে কত ফলাফল দেখলাম সেইগুলো এমনি এমনি আমার সামনে চলে আসে? নাহ! এইগুলো এমনি এমনি আমাদের সামনে আসে না। যার বা যাদের ওয়েবসাইটের ফলাফল আমরা প্রথম পেইজে দেখতে পাই তারা সার্চ ইঞ্জিন অপটাইজেশন করেই আমাদের সামনে প্রথম পাতায় নিয়ে আসে। যদি আপনি SEO শিখতে পারেন তাহলে আপনার ক্যারিয়ার অনেক উজ্জ্বল।
কোথা থেকে SEO শিখবেন?
চলে যান এই লিংকে https://www.clickminded.com/mc-registration-seo-keyword-strategy-2/ অথবা এই https://yoast.com/academy/free-seo-training-seo-for-beginners/ এই লিংক হতে বিগেনার কোর্সটি বিনামুল্যে করে ফেলুন।
সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং (SEM): সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং বা SEM করে মানুষ তার ওয়েবসাইট বা প্রোডাক্টে ভিবিন্ন টার্গেটবেইজড ভিজিটর মানুষ নিয়ে আসে। SEM কে আবার পেইড সার্চ মার্কেটিং বলা হয়ে থাকে। আপনি যদি গুগলে কিছু সার্চ করে থাকেন তাহলে অনেক সময় দেখবেন প্রথম পেইজে ads নামে একটা বা দুইটা সাইট থাকে। এই মার্কেটিং গুলোই আপনাকে করতে হবে বা করে SEM করে।
SEM যদি শিখতে চান তাহলে এই লিংকে https://www.emarketinginstitute.org/free-courses/search-engine-marketing-certification-course/ গিয়ে ফ্রি কোর্সটি করে ফেলুন।
সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বা SME: ডিজিটাল মার্কেটিং এর অন্যতম জনপ্রিয় এই সেকশনটি। নাম শুনেই বুঝতে পেরেছেন এটার কাজ কী কিংবা কীভাবে এই গুলো করে। হ্যা আপনি ঠিকই ধরেছেন আপনি যদি একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হয়ে যান বা হতে চান তাহলে আপনাকে ভিবিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট যেমন ফেসবুক/লিংকদিন/টুইটার/ইন্সটাগ্রাম ইত্যাদি নিয়ে ভালোভাবে জানতে হবে। এদের কাজ কীভাবে করে জানতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং শিখতে এই https://alison.com/courses/diploma-in-social-media-strategy/content?event=login কোর্সটি অথবা https://www.emarketinginstitute.org/free-courses/social-media-marketing-certification-course/ এই কোর্সটি না হয় https://www.skillshare.com/classes/Introduction-to-Social-Media-Strategy-Learn-with-Buffer/1934895986 করতে পারেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং: অ্যাাফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে গতকাল অনেক কিছু বলেছি, এফিলিয়েট মার্কেটিং কী সেটা যদি সহজে বলি তার উত্তর হলোঃ অনলাইনে ভিবিন্ন বড় বড় কোম্পানির জিনিষ গুলো আপনি “বিক্রি করে” দিবেন । বিনিময়ে সেটির কমিশন পাবেন। আরো সহজ করে যদি বলি “ ধরেন আপনার মুখের ভাষা অনেক কিউট, আপনি সহজেই মানুষ পটাতে পারে” এখন আপনার এলাকার বড় কোন দোকান থেকে এক কেজি তেল নিয়ে একটি ভালো রিভিউ দিয়ে আপনার পরিচিত কারো কাছে বিক্রি করে দিলেন” এখন ঐ যে আপনি বড় দোকানের তেল আপনার কারো কাছে রিভিউ দিয়ে বিক্রি করিয়ে দিয়েছেন তার বিনিময়ে বড় দোকানদার আপনাকে ১০% বা বেশী কমিশন দিলো। ঐ কমিশন জিনিষটাই হলো এফিলিয়েট।

এখন এই অফলাইনের এফিলিয়েট সিস্টেমটাকে যদি আমরা অনলাইনে তুলনা করি তাহলে কাহিনী এমন হয় “ আমি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করলাম, সেখানে আমি কম্পিউটার নিয়ে ভালো ভালো টিপস দিলাম, টিপসের পাশে অনলাইনের কোন বড় শপ (আমাজন) এর কম্পিউটার এর লিংক এড করে দিলাম, সেখানে লিখে দিলাম এই কম্পিউটারটি যদি কিনতে চান তাহলে এখান থেকে কিনতে পারেন। যখন আপনার ওয়েবসাইটে এসে কেও ভিজিট করে এবং সে যদি ইম্প্রেস হয়ে আপনার দেওয়া লিংক হতে কম্পিউটারটি কিনে ফেলে তাহলেই আমাজন থেকে আপনাকে কমিশন দিবে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং যে শুধু যে ওয়েবসাইট করে আমাজনের করবেন এমন নয় কিন্তু, আপনি যে কোন প্রোডাক্টের প্রমোশন করে দিতে পারেন। সেটিই বিক্রি করাতে পারলেই কমিশন পাবেন। যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং শিখতে চান তাহলে এই কোর্স গুলো দেখতে পারেনঃ https://www.skillshare.com/browse/affiliate-marketing?clickid=ym5QppT8jxyOW89wUx0Mo3QwUkiUG7wpBVSt040&irgwc=1&utm_content=4650&utm_term=Online%20Tracking%20Link&utm_campaign=397676&affiliateRef=6595003&utm_medium=affiliate-referral&utm_source=IR
অথবা এই https://mega.nz/folder/ZCwjSB7b#M0y4slfQcDMbv4yBueBdMw কোর্সটি ডাউনলোড করতে পারেন।

ইমেইল মার্কেটিংঃ ডিজিটাল মার্কেটিং’র আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ইমেইল মার্কেটিং। যদি আপনি একজন ইমেইল মার্কেটার হতে চান তাহলে এই কোর্সটি দেখতে পারেনঃ https://www.hubspot.com/resources/courses/email-marketing

ভাইরাল মার্কেটিংঃ ভাইরাল মার্কেটিং শিখতে হলে আপনাকে ট্রেন্ড বুঝতে হবে, অর্থাৎ দুনিয়াতে এখন কোন টপিক চলে সেটি জানতে হবে। যদি ট্রেন্ড বুঝে যান আপনি আপনার কনটেন্ট ভাইরাল করাতে পারবেন।
ফ্রি এই https://www.classcentral.com/course/wharton-contagious-viral-marketing-5034 কোর্সটি করতে পারেন।

তাছাড়া ও ডিজিটাল মার্কেটিং এর আরো অনেক সেকশন আছে। সেগুলো নিয়ে আরেকদিন আলোচনা করবো। আবাতত উপরের যে কোন একটি টপিক থেকে শুরু করে দিন আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার।

এখন কিছু টিপস দেইঃ
আপনি তখনি সফল ডিজিটাল মার্কেটার হবেন যখন মানুষ এর মাইন্ড বুঝতে পারবেন। সব সময় রিসার্চ করার চেষ্টা করবেন। কারণ রিসার্চ করা না জানলে ডিজিটাল মার্কেটারের ভাত নাই।
যদি আপনি মনে করেন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হবেন তাহলে কখনো চিন্তা করে যাবে না “ সোশ্যাল মিডিয়া মানেই ফেসবুক” মনে রাখবেন ফেসবুক ছাড়া আরো শত শত সোশ্যাল মিডিয়া আছে। আপনাকে আপনার ক্লাইন্ট বা টার্গেট ভিজিটরের কাছে সঠিক পণ্যটি পৌছাতে হবে। এ ক্ষেত্রে সে যদি ফেসবুক ব্যাবহার করে তাহলে ফেসবুক না হলে টুইটার।
তাড়াহুড়া করা যাবে না। আপনি হয়তো ফেসবুক এডের কাজ শিখে নিজেকে অনেক বড় ডিজিটাল মার্কেটার ভেবে ফেলেন বা ফেলবেন, এই জিনিষ করা যাবে না। সময় নিবেন একটি জিনিষ শিখা হয়ে গেলে আরেকটি নতুন জিনিষ শিখবেন। প্রতিদিন নতুন কিছু শিখে নিজের স্কিল বাড়াবেন। কখনো এখানেই সব শেষ বা আমি বস হয়ে গেছি চিন্তা করা যাবে না।
টাকা ইনকামের জন্য হর্নি হবেন না, আগে নিজের স্কিল আপগ্রেড করবেন, এই জিনিসটা করে ফেললে টাকা আপনার বাসায় আসবে। তাই এই লাইনে আসার আগে কিছু ইনভেস্ট নিয়ে আসুন। টাকার জন্য হার্নি হয়েছেন আর ধরে নিয়েন এখানেই ক্যারিয়ার শেষ।
এবার কিছু ওয়েবসাইট লিস্ট দিচ্ছি যেইগুলো আপনি ফলো করলে হয়তো একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার হয়ে যাবেন এবং আমি যেই সকল ওয়েবসাইট ফলো করিঃ
প্রতিদিন সকালে উটে বা ঘুমানর আগে চেষ্টা করে দেখবেন এই সাইট গুলো কী করে? কী লিখে? এই সাইটের ফাউন্ডার গুলোর লাইফস্টাইল গুলো কেমন! কথায় আছে গুণীজনের সাথে থাকলে ভালো না হলে ও খারাপ হওয়া যায় না। তাই এদের অনুসরণ করলে নিজের লাইফস্টাইল বা নিজের মার্কেটিং স্টাজি পরিবর্তন করতে পারবেন।
এবার ডিজিটাল মার্কেটিং এর কিছু টুলস শেয়ার করবো যেগুলো আপনার অনেক কাজে লাগবেঃ
এইবার ফ্রি কিছু ডিজিটাল মার্কেটিং এর কোর্সঃ
আশা করি এই রিসোর্স গুলো কাজে লাগালে অনেক কিছু করতে পারেন। আর যাই হউক শুরু তো করতে পারবেন। এরপর আবার আরেকটি পর্বে দেখা হবে এডভান্স আরো কিছু নিয়ে। কেমন লাগলো জানাতে ভুলবেন না! অনেক লম্বা লেখা তাই বানান ভুল হলে ক্ষামা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

আর পোস্টটি অব্যশই আমার টাইমলাইনে গিয়ে শেয়ার করবেন। কারণ শেয়ার করলে দরকারের সময় সব রিসোর্স গুলো সামনে থাকবে সবসময় আপনার।

কাশিম উদ্দিন মাছুম

Author

কাশিম উদ্দিন মাছুম

আমি কাশিম উদ্দিন মাছুম, খুব সাধারন একটি ছেলে, নিজের মত চলতে ভালোবাসি। প্রতিদিন নতুন কিছু শিখতে চাই, আর সেই জিনিষ শিখে সবাইকে শিখাতে ভালোবাসি।

Comments (6)

  1. Md.Rasel Hossen
    সেপ্টেম্বর 1, 2020 জবাব

    Oh nice

  2. prince delwar
    অক্টোবর 23, 2020 জবাব

    আপনার লেখা সবসময়ই দারুন হয়

    • prince delwar
      অক্টোবর 23, 2020 জবাব

      আপনার লেখা সবসময়ই দারুন হয়, আমি আপনার প্রায় অনেক লেখা পড়েছি দোয়া করবেন আমি যেন আল্লাহর রহমতে সফল হতে পারি*

  3. prince delwar
    অক্টোবর 23, 2020 জবাব

    আপনার লেখা সবসময়ই সুন্দর হয় , আপনার অনেক লেখা পড়া শেষ ,, দোয়া করবেন যেন আমি সফল হতে পারি

  4. Payel Marzaan
    Payel Marzaan
    নভেম্বর 12, 2020 জবাব

    ভাইয়া ,আমি ডিজিটাল মার্কেটিং দিয়ে আমার যাত্রা টা শুরু করতে যাচ্ছি,আপনার লেখা পড়ে খুবই ভালো লেগেছে।ধন্যবাদ ভাইয়া

  5. Mithun Dev Nath
    ডিসেম্বর 16, 2020 জবাব

    আপনি এভাবে গাইডলাইন করা জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আপনার সফলতার পাশাপাশি আমাদের সফল হওয়ার সুযোগ করেছেন। আপনি নতুন ফিল্যান্সদের ভালো গাইডলাইন মাধ্যমে তাদের সফল পৌছাতে আপনাকে এভাবে পাশে থাকা অনেক প্রয়োজন। আমাদের আরো নতুন তথ্য ও গাইডলাইন দিয়ে সাহায্য করার অনুরোধ করছি।

Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সফল ফ্রিল্যান্সারের কোর্স করতে চান? তাহলে আপনার তথ্য দিয়ে রাখুন!

নতুন কোর্স শুরু হলে আমরা আপনাকে জানিয়ে দিবো অব্যশই কুপন কোড সহ