SF Birthday

সফল ফ্রিল্যান্সার এর ‘সফলতার’ এক বছর

বিশাল এক স্বপ্ন নিয়ে এবং ছোট্ট একটা ডোমেইন কেনার মধ্য দিয়ে ২০১৯ সালের ২৮শে নভেম্বর অফিসিয়ালি যাত্রা শুরু হয় সফল ফ্রিল্যান্সার এর। এরপর হাটি হাটি পা পা করে এগিয়ে যেতে থাকে এবং সেই সাথে বড় হতে থাকে কমিউনিটি। যেই লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য নিয়ে সফল ফ্রিল্যান্সার প্রতিষ্ঠা হয়েছিলো, সকলের সহযোগিতায় তা অনেকটাই সফল। এখানেই কিন্তু শেষ নয়, নিত্য নতুন পরিকল্পনার মাধ্যমে আরো বৃহৎ পরিসরে নতুন করে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হচ্ছে!! আরো অনেক চমক দেখা এখনো বাকি আছে।

গত ২২শে সেপ্টেম্বর এক লক্ষ মেম্বার পূর্তির পরে খুব দ্রুতই আপনাদের সকলের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে প্রায় দেড় লক্ষ মানুষ এই প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়েছে এবং প্রতি নিয়ত তাদের নানান জিজ্ঞাসার সমাধান এবং সাহায্য পাচ্ছে। এতো দ্রুত এই বিশাল সংখ্যক মানুষের মনে জায়গা করে নিতে, ভরসাস্থল হয়ে উঠতে এর পিছনে কাজ করা মানুষগুলোর অবদান অনেক বেশি। শুরু থেকে এই পর্যন্ত যেই মানুষগুলো নিজেদের শ্রম, সময় দিয়ে এই প্ল্যাটফর্মকে সমৃদ্ধ করতে সহায়তা করেছেন তাদের সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ। সব সময় এখানে না থাকতে পারলেও তাদের সবার কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা হবে।

সবাই এক ব্যানারে

রাজধানী ঢাকার ধানমন্ডির এক রেস্তরাঁতে সবাই একত্রিত হয়েছিল সফল ফ্রিল্যান্সার এর জন্মদিন উদযাপন করতে। 

প্রশিক্ষকগণ একসাথে

সফল ফ্রিল্যান্সার এর বিশেষ দিনে উক্ত অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়েছিলেন সহযোগী প্রতিষ্ঠান লার্ন উইথ এসএফ এর সম্মানিত ৬ জন প্রশিক্ষক। তারা হলেন: এস এম আকিব (এফ-কমার্স কোর্স), চমক বিশ্বাস (এফিলিয়েট মার্কেটিং কোর্স), সাইদুর রহমান সেতু (থিমস ডেভলপমেন্ট), রায়হান বিন জামান (ওয়ার্ডপ্রেস থিম কাস্টমাইজেশন কোর্স), ইমন মোল্লা (গ্রাফিক্স ডিজাইন) এবং কানিজ রিয়া (গ্রাফিক্স ডিজাইন)। তাদের শত ব্যস্ততার মাঝেও সফল ফ্রিল্যান্সার এর ভালোবাসার টানে উপস্থিত হয়েছিলেন। সেই সাথে আরো ছিলেন গ্রুপের ৪ জন সৌভাগ্যবান সদস্য এবং অ্যাডমিন প্যানেলের সদস্যরা। বিকেল থেকে কেক আনা, ডেকোরেশন করা, বেলুন ফুলানো, ব্যানার আনা এবং টানানো,  অতিথিদের অভ্যর্থণা জানানো সহ নানা কাজে এক উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজমান ছিলো। 

যারা সরাসরি উপস্থিত হতে পারেননি তারাও ছিলেন আমাদের সঙ্গে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে, দূরে থেকেও কাছে ছিলেন সবাই। কাতার থেকে প্রোগ্রামে যুক্ত হয়েছিলেন সফল ফ্রিল্যান্সার এর প্রতিষ্ঠাতা কাশিম উদ্দিন মাছুম। সবার সাথে কুশলাদি বিনিময়ের পরে তিনি বলেন,

“প্রিয় পরিবারের এক বছর! যেই স্বপ্ন নিয়ে শুরু করেছিলাম সেটা অনেকটা পূরণ হয়েছে কেবল আপনারা সাথে ছিলেন বলেই !! যেতে হবে অনেকদুর। ধন্যবাদ সবাইকে সাথে থাকার জন্য এই একবছর, ইনশাআল্লাহ্‌ আপনাদের নিয়ে যুগের পর যুগ যেতে চাই।” 

সফল ফ্রিল্যান্সার এর সহপ্রতিষ্ঠাতা মাহমুদুল হাসান খান সবার উদ্দেশ্যে বলেন,

“শুরুটা ছিল একদম অল্প থেকে, শুধু চেয়েছিলাম যাতে নতুনরা ভাল কিছু পায়, একটা সাপোর্ট পায়। যেদিন শুরু করেছিলাম তখন এত প্ল্যান ছিল না, এখন অনেক কিছু করার সাহস করি আমরা। কিভাবে করি জানেন? সব এই কমিউনিটি মেম্বারদের ভালোবাসা, এটাই সাহস জাগায়। এখন নিয়মিত রাত জেগে প্ল্যান সাজাই কিভাবে সবাইকে নিয়ে সামনে আগানো যায়। আজকে এই খুশির দিনে একটা কথাই বলব, ভালোবাসি আমার কমিউনিটিকে, ভালোবাসি আমার কমিউনিটি মেম্বারদের, আশা করি এভাবেই সবাইকে পাশে পাবো সব সময়।”

গ্রুপের অ্যাডমিন, মডারেটর, ট্রেইনার এবং আগত অতিথিদের নিয়ে কেক কেটে উদযাপন করা হয়। সবাই সমস্বরে বলে উঠেন, “শুভ জন্মদিন সফল ফ্রিল্যান্সার”। গ্রাফিক্স ডিজাইন

অ্যাডমিন, মডারেটরগণ এক ফ্রেমে

কোর্সের ট্রেইনার কানিজ রিয়া নিজ হাতে পুডিং বানিয়ে নিয়ে আসে এই দিনকে আরো স্মরণীয় করে রাখতে। সবার পরিচয় এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে হলেও এখন সবাই একটা পরিবার। সমভাবাপন্ন মানুষদের সাথে অনলাইন থেকে বেরিয়ে অফলাইনেও খুব ভালো সময় কাটে। শুধু খাওয়া-দাওয়া, আড্ডা, গল্প নয় সফল ফ্রিল্যান্সার এর ভবিষ্যত পরিকল্পনাগুলো নিয়েও আলোচনা করা হয়। আলোচনায় বারবারই নাম উঠে আসে কাশিম উদ্দিন মাছুম এবং মাহমুদুল হাসান খানের। তাদের সেদিনের সাহসী উদ্যোগের ফলেই আজ দেড় লাখ স্বপ্নবাজ স্বপ্ন দেখার সাহস পাচ্ছে। উপস্থিত সকলেই তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সবাই এভাবেই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সফল ফ্রিল্যান্সারকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চান। 

 

lima

Author

lima

Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।